মেনু নির্বাচন করুন
Text size A A A
Color C C C C
সর্ব-শেষ হাল-নাগাদ: ২০ এপ্রিল ২০২১

ঐতিহাসিক ৭ই মার্চ উদযাপন উপলক্ষ্যে বাংলাদেশ হাউস বিল্ডিং ফাইনান্স কর্পোরেশনের ভার্চুয়াল আলোচনা সভা


প্রকাশন তারিখ : 2021-03-07
ঐতিহাসিক ৭ই মার্চ উদযাপন উপলক্ষ্যে বাংলাদেশ হাউস বিল্ডিং ফাইনান্স কর্পোরেশনের উদ্যোগে ৭-৩-২০২১ তারিখ বিকাল ৪.০০ ঘটিকায় এক ভার্চুয়াল আলোচনা সভার আয়োজন করা হয়। অনুষ্ঠানে বিএইচবিএফসি’র ব্যবস্থাপনা পরিচালক জনাব মোঃ আফজাল করিম এর সভাপতিত্বে প্রধান অতিথি হিসেবে সংযুক্ত ছিলেন বিএইচবিএফসি’র সম্মানিত চেয়ারম্যান প্রফেসর ড. মোঃ সেলিম উদ্দিন, এফসিএ, এফসিএমএ। সভায় বিএইচবিএফসি’র মহাব্যবস্থাপকগণ, উপ-মহাব্যবস্থাপকগণ এবং সকল জোনাল, রিজিওনাল ও শাখা ম্যানেজারগণসহ সকল কর্মকর্তা-কর্মচারীবৃন্দ অংশগ্রহণ করেন।
প্রধান অতিথি প্রফেসর ড. মোঃ সেলিম উদ্দিন বলেন মহান ভাষা আন্দোলন থেকে স্বাধীন-সার্বভৌম বাংলাদেশ অর্জনের এই দীর্ঘ বন্ধুর পথে বঙ্গবন্ধুর অপরিসীম সাহস, সীমাহীন ত্যাগ-তীতিক্ষা, বলিষ্ঠ নেতৃত্ব এবং সঠিক দিকনির্দেশনা জাতিকে কাঙ্খীত লক্ষ্যে পৌছে দেয়। ১৯৭১ সালের ৭ই মার্চ স্বাধীনতার মহান স্থপতি জাতির পিতা বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিবুর রহমান তৎকালীণ পাকিস্তানী শাসকগোষ্ঠীর রক্তচক্ষু উপেক্ষা করে অসীম সাহসিকতার সাথে ঢাকার রেসকোর্স ময়দানে বিকাল৩.২০ মিনিটে লাখো জনতার উদ্দেশ্যে বজ্রকণ্ঠে ১৯ মিনিটব্যাপী যে ঐতিহাসিক ভাষণ প্রদান করেন তা ছিল মূলত বাঙালি জাতির মুক্তির সনদ এবং মুক্তিযুদ্ধকালে সকলের জন্য উজ্জীবনী শক্তি হিসেবে কাজ করছে। তাই আমাদের গৌরবজ্জল মহান মুক্তিযুদ্ধে এই ভাষনের অবদান অপরিসীম।
ইউনেসকো কর্তৃক বঙ্গবন্ধুর ১৯৭১ সালের ৭ মার্চের ঐতিহাসিক ভাষনকে পৃথিবীর গুরুত্বপূর্ণ দালিলিক ঐতিহ্য হিসেবে মর্যাদা প্রদান করায় আমাদের সকলের জন্য এক বিশাল সম্মান বয়ে এনেছে মর্মে তিনি উল্লেখ করেন। জাতির পিতা বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিবুর রহমানের ভাষণের কিছু অংশ ব্যাখ্যা করে বলেন, তিনি সেদিন স্বাধীনতার ঘোষণা যেমন পরোক্ষভাবে প্রদান করেন, তেমনি সশস্র গেরিলা যুদ্ধের ব্যাপারেও দিক নির্দেশনা রাখেন। স্বাধীন সার্বভৌম বাংলাদেশকে একটি সুখি-সমৃদ্ধ সোনার বাংলায় পরিণত করাই ছিল বঙ্গবন্ধুর আজীবনের লালিত স্বপ্ন। বঙ্গবন্ধুর সোনার বাংলা গড়ার প্রত্যয়ে বঙ্গবন্ধু কন্যা শেখ হাসিনার নেতৃত্বে দেশকে এগিয়ে নিতে সকলকে একযোগে কাজ করার আহবান জানান। তিনি এ ধরনের একটি সফল অনুষ্ঠানের আয়োজন করায় বর্তমান ব্যবস্থাপনা কর্তৃপক্ষকে ধন্যবাদ জ্ঞাপন করেন।
আলোচনার শুরুতে ব্যবস্থাপনা পরিচালক মহোদয় ঐতিহাসিক ৭ই মার্চ উপলক্ষ্যে জাতির পিতা বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিবুর রহমান, ১৫ আগষ্ট শাহাদতবরণকারী বঙ্গবন্ধু পরিবারের সকল সদস্য এবং স্বাধীনতা যুদ্ধে জীবন উৎসর্গকারী সকল মুক্তিযোদ্ধাদের শ্রদ্ধাভরে স্মরণ করেন এবং বঙ্গবন্ধু কন্যা মাননীয় প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনার প্রতিও গভীর কৃতজ্ঞতা প্রকাশ করেন। ৭ই মার্চের ভাষণকে তিনি যাদুকরী ভাষণ বলে আখ্যা করেন। যে ভাষণের যাদুতে ৭ কোটি মানুষ স্বাধীনতা সংগ্রামে উজ্জীবিত হয়েছিল এবং পাকিস্তানি বাহিনীর সাথে যুদ্ধ করে পরাধীনতার শৃঙ্খল থেকে দেশকে মুক্ত করতে পেরেছিল। তাই বঙ্গবন্ধু, বাংলাদেশ এবং স্বাধীনতা একই সূত্রে গাঁথা মর্মে তিনি উল্লেখ করেন। তিনি বঙ্গবন্ধু কন্যা মাননীয় প্রধানমন্ত্রীর শেখ হাসিনার যোগ্য নেতৃত্বের ভূয়সী প্রশংসা করে বলেন তাঁর নেতৃত্বে বাংলাদেশ আজ বিশ্বের রোল মডেল। তাঁর দৃঢ ও গতিশীল নেতৃত্বে স্বাধীনতার ৫০ বছরের মধ্যে বাংলাদেশ আজ মধ্যম আয়ের দেশে পরিণত হয়েছে। বঙ্গবন্ধু স্বপ্ন প্রান্তিক জনগোষ্ঠীর জীবন মানের উন্নয়ন সাধন করা। বঙ্গবন্ধু কন্যা সে লক্ষ্যকে সামনে রেখে দিনরাত কাজ করে যাচ্ছেন। বঙ্গবন্ধু কন্যা মাননীয় প্রধানমন্ত্রীর উন্নয়নের ধারা অক্ষুন্ন রাখার স্বার্থে বিএইচবিএফসি’র প্রেক্ষিতে সকলকে সততা ও নিষ্ঠার সাথে দায়িত্ব পালনের আহবান জানান। তিনি গ্রাহক সেবাকে প্রধান্য দিয়ে কাঙ্খীত লক্ষ্যমাত্রা অর্জনের উপর গুরুত্বারোপ করেন। পাশাপাশি সকল প্রকার অনিয়ম ও গ্রাহক হয়রানির বিরুদ্ধে জিরো ট্রলারেন্স নীতিও ঘোষনা করেন। পরিশেষে স্বল্পসময়ে এ ধরনের একটি অনুষ্ঠানের আয়োজন করায় সংশ্লিষ্ট সকলকে ধন্যবাদ জানান।
বিএইচবিএফসি’র মহাব্যবস্থাপক জনাব অরুন কুমার চৌধুরী বলেন- ঐতিহাসিক ৭ই মার্চ বিশ্ববাসীর কাছে একটি দলিল এবং বাঙালি জাতির জন্য একটি সম্পদ। এ ভাষনের মাধ্যমে তিনি স্বাধীনতার বীজ বপন করেছিলেন। তিনি সকলকে ৭ই মার্চের চেতনা এবং বঙ্গবন্ধুর আদর্শ ধারণ করে যার যার ক্ষেত্র থেকে গণমানুষের উন্নয়নে কাজ করে যাওয়ার আহবান জানান।
ভার্চুয়াল সভায় আরো বক্তব্য রাখেন বিএইচবিএফসি’র উপ-মহাব্যবস্থাপক জনাব মোঃ খালেদুজ্জামান, অফিসার কল্যাণ সমিতির সিনিয়র যুগ্ম আহবায়ক ও বিভাগীয় প্রধান প্রকৌশলী মোঃ গোলাম মোস্তফা; বিএইচবিএফসি’র বঙ্গবন্ধু পরিষদের সভাপতি ও সিঃ প্রিন্সিপাল অফিসার জনাব তারেক ইমতিয়াজ খান এবং বঙ্গমাতা পরিষদের সাধারণ সম্পাদক ও সিনিয়র অফিসার জনাব মোঃ আবু সাঈদ। সঞ্চালক হিসেবে সভাটি পরিচালনা করেন বিএইচবিএফস’র সহকারী মহাব্যবস্থাপক জনাব মোঃ নজরুল ইসলাম।

Share with :

Facebook Facebook